আপনাদের মতামত

Placeholder

একজন মুক্তিযোদ্ধা বেলায়েত

দুই নম্বর সেক্টরটা ছিল মুক্তিযুদ্ধের সবচেয়ে দুর্ধর্ষ দু:সাহসীদের সমাবেশ। অসামান্য মেধা, তীক্ষ্ণ বুদ্ধি আর অকুতোভয় সাহসের মিশেলে গড়া বেশ কিছু অভাবনীয় সাহসী মানুষ জড়ো হয়েছিল এই সেক্টরে। সুবেদার বেলায়েত সেই তুলনা ছিল খুবই সাধারণ। হাসিখুশী সরল সাধাসিধে মানুষটা খুবই বিশ্বস্ত ছিল, সবার সাথে খুব সহজেই মিশে যেতে পারতো।

‘দেখলাম, কণ্ঠ দিয়ে গর্জন বেরুচ্ছে, যেন একটা স্টিম রোলারের মতো পাকিদের উপর দিয়ে চলে যাচ্ছে বেলায়েত, পিষতে পিষতে…’.

-মেজর ডাঃ আখতার

Placeholder

আওয়ামী লীগ হওয়া যায় না

ঘটনাবহুল বাংলাদেশে একের পর এক চিত্রপট বদলে যায়। একটি বিষয় বা ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আরেকটি চলে আসে। কখনো রাজনৈতিক, কখনো বা প্রাকৃতিক বিপর্যয় আমাদের উদ্বিগ্ন করে তোলে। কখনো জঙ্গিবাদের আঘাত আমাদের ক্ষতবিক্ষত করে, আবার সন্ত্রাসবাদের দমন আমাদের স্বস্তি এনে দেয়। সবচেয়ে বুকভরা আনন্দ দেয়, আমাদের সোনার ছেলেরা যখন ক্রিকেট দুনিয়াকে কাঁপিয়ে দেয়। বাজেট পাস হয়ে গেছে।

সরকারের-দশ-বছরে-আমাদের-চারপাশে-এখন শুধুই আওয়ামীলীগ।

-পীর হাবিবুর রহমান

Placeholder

সুবোধ তুই পালিয়ে যা…

চকচকে কোনো দেয়াল নয়, অতি সাধারণ একটি দেয়াল, তা-ও কোনো বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় নয়, একেবারে সাধারণ কয়েকটি স্থানের দেয়াল। সেই দেয়ালের গায়ের দেয়ালচিত্র বা গ্রাফিতি সমাজের হাতেগোনা কয়েকটি মনকে হলেও নাড়া দিয়েছে। কী আছে ওই গ্রাফিতিতে?

অজানা এই শিল্পীর এই গ্রাফিতি কেন এভাবে সমাজের এক কোণে হলেও নাড়া দিল? কেন দেয়াল থেকে উঠে এল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বা সামাজিক ফোরামে, উঠে এল পত্রিকায় পাতায়, টেলিভিশনের পর্দায়।

-স্বদেশ রায়